ই-পেপার সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২
ই-পেপার |  সদস্য হোন |  পডকাস্ট |  গুগলী |  ডিসকাউন্ট শপ
সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪ ৬ শ্রাবণ ১৪৩১
থানচিতে দুই নিখোঁজ শিক্ষার্থী একজনের মরদেহ উদ্ধার
নতুন সময় প্রতিবেদক
প্রকাশ: Monday, 8 July, 2024, 10:34 PM


থানচিতে দুই নিখোঁজ শিক্ষার্থী একজনের মরদেহ উদ্ধার

থানচিতে দুই নিখোঁজ শিক্ষার্থী একজনের মরদেহ উদ্ধার

বান্দরবানে থানচিতে তিন্দু ইউনিয়নের পদ্ম খাল সংলগ্ন চিংড়ি ঝিরি এলাকায় নৌকা ডুবে দুই স্কুল শিক্ষার্থী নিখোঁজ হওয়ার সাত দিন পর একজনের মরদেহ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় ও পুলিশ।

সোমবার (০৮ জুলাই) দুপুরে থানচি বলিপাড়া ইউনিয়নের ক্রংক্ষ্যং পাড়া নিচে সাঙ্গু নদীর সংলগ্ন শিলাঝিড়ি মুখ এলাকায় অজ্ঞাত এক মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, ক্রংক্ষ্যং পাড়া বাসিন্দা কয়েকজন মহিলা শিলাঝিড়ি মুখ এলাকায় শামুক ও মাছ ধরতে গেলে সেখানেই অজ্ঞাতপরিচয় মরদেহ পড়ে থাকতে দেখতে পায়। তারা তাৎক্ষণিকভাবে  লোকজনের কাছে খবর দিলে পাড়াবাসীরা প্রথমে পুলিশের কাছে বিষয়টি অবগত করার হয়। এবং নিখোঁজ দুই স্কুল শিক্ষার্থী অভিভাবকদেরও খবর দেন। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগীতায় পুলিশ বাহিনী মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে।

আরো জানা যায়, উদ্ধারকৃত মরদেহ নিখোঁজ হওয়ার দুই শিক্ষার্থী মধ্যে গত ১ তারিখে নৌকা ডুবে সাঙ্গু নদীতে নিখোঁজ হওয়ার দুই স্কুল শিক্ষার্থীদের মধ্যে শান্তিরানী ত্রিপুরা (১১) লাশ বলে আত্মীয়স্বজনরা চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়েছে।

এনিয়ে টিমং পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আগষ্টিন ত্রিপুরা বলেন, অজ্ঞাতপরিচয় মরদেহ সন্ধানে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি লাশটি গত ১ তারিখে নৌকা ডুবে সাঙ্গু নদীতে নিখোঁজ হওয়ার দুই স্কুল শিক্ষার্থীদের মধ্যে শান্তিরানী ত্রিপুরা (১১) লাশ। আমি নিশ্চিত করে বলতে পারি লাশটি শান্তিরানী ত্রিপুরা।

থানচি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ জসিম উদ্দিন বলেন, অজ্ঞাতপরিচয় মরদেহ সন্ধানে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে তদন্ত দল পাঠানো হয়েছে। তবে সাঙ্গু নদীতে নৌকা ডুবি নিখোঁজ দুই স্কুল শিক্ষার্থীদের একজনের লাশ বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি।

উল্লেখ্য, গত ০১ জুলাই পদ্ম খাল সংলগ্ন চিংড়ি ঝিড়ি এলাকায় নৌকা ডুবে দুই স্কুল শিক্ষার্থী নিখোঁজ হয়েছিল। তাঁরা হলেন, ফুলবানী ত্রিপুরা (১০) তিন্দু ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের হরিশচন্দ্র পাড়া নিলাপ্রু ত্রিপুরা'র মেয়ে। অপর জন মুতিজন ত্রিপুরার মেয়ে শান্ত্রিরানী ত্রিপুরা (১১) তাঁরা একই পাড়ার বাসিন্দা। ফুলবানী ত্রিপুরা টিমং পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেনীর ছাত্রী। অপরজন শান্তিরানী ত্রিপুরা হানারাং পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেনীর ছাত্রী ছিল।

� পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ �







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, গ্রীন ট্রেড পয়েন্ট, ৭ বীর উত্তম এ কে খন্দকার রোড, মহাখালী বা/এ, ঢাকা ১২১২।
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: [email protected]
কপিরাইট © দৈনিক নতুন সময় সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft
DMCA.com Protection Status