ই-পেপার সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২
ই-পেপার |  সদস্য হোন |  পডকাস্ট |  গুগলী |  ডিসকাউন্ট শপ
সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪ ৬ শ্রাবণ ১৪৩১
পাথরঘাটায় পরকীয়া আসক্ত স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রী, সন্তান ও সংসার বাঁচাতে থানায় স্বামী
নতুন সময় প্রতিবেদক
প্রকাশ: Saturday, 6 July, 2024, 1:08 PM

পাথরঘাটায় পরকীয়া আসক্ত স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রী, সন্তান ও সংসার বাঁচাতে থানায় স্বামী

পাথরঘাটায় পরকীয়া আসক্ত স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রী, সন্তান ও সংসার বাঁচাতে থানায় স্বামী

বরগুনার পাথরঘাটা পৌরসভায় পরপুরুষে আসক্ত স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রীর হাত থেকে সংসার, সন্তান ও সম্পদ রক্ষা করতে পাথরঘাটা থানা ও পাথরঘাটা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন ওমর ফারুক নামের এক ভুক্তভোগী স্বামী।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) পাথরঘাটা থানা ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস বরাবর নিজ স্ত্রীর নামে এ অভিযোগ করা হয়।
ভুক্তভোগী ওমর ফারুক পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা। ভুক্তভোগীর লিখিত ও মৌখিক অভিযোগ সূত্রে জানা যায় যে, ওমর ফারুক এর স্ত্রী সায়দিয়া বিনতে আলম (নিঝুম) পাথরঘাটা উপজেলার ৩২নং পূর্ব ঘুটাবাছা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন সহকারী শিক্ষিকা। সে দীর্ঘদিন ধরে পরপুরুষে আসক্ত।
তারই ধারাবাহিকতায় গত ৩০ জুন'২৪ রাত আনুঃ ১০ ঘটিকায় পাথরঘাটা উপজেলার ১৪৮ নং আব্দুল মোতালেব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পাথরঘাটা পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের মৃত আবুল কালাম এর ছেলে তোফাজ্জেল হোসেন হাসান এর সাথে ভুক্তভোগী ওমর ফারুকের নিজ পাকা বাড়ির দ্বিতীয় তলার কক্ষে শারিরীক সম্পর্কে লিপ্ত হওয়ার সময় স্থানীয় মো. গোলাম মোস্তফা, মো. জয়নাল আবেদিন, মো. কালাম ফরাজি,মো. হাকিম, মো  খলিল মুন্সি ও মো. ছগিরসহ এলাকাবাসী তাদেরকে হাতেনাতে আটক করেন।
পরে বিষয়টি জানাজানি হলে পাথরঘাটা পৌরসভার ৩নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. আবু বক্কর ছিদ্দিক মিল্লাতসহ স্থানীয়দের কাছে অভিযুক্ত তোফাজ্জেল হোসেন হাসান ভুক্তভোগী ওমর ফারুকের স্ত্রীর সাথে অবৈধ কাজে লিপ্ত হওয়ার কথা স্বীকার করে একটি লিখিত অঙ্গিকারনামা দেন। পরে হাসানের মামা শহিদুল ইসলাম একটি লিখিত অঙ্গিকার দিয়ে এলকাবাসীর রোষানল থেকে ভাগ্নেকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যান।

ভুক্তভোগী ওমর ফারুক বলেন জীবনে আমি অনেক বড় একটা ভুল করেছি, আমার টাকায় স্ত্রীর জমিতে কোটি টাকা ব্যয় করে তিনতলা বিশিষ্ট একটি বাড়ি নির্মাণ করেছি। এখন আমার পরকীয়া স্ত্রী সেই বাড়িটির তিনিই মালিক বলে দাবী করছেন। এ ছাড়াও তিনি আরও বলেন ওই ঘরে তাছকিয়া এলিশা নামে ৭ বছরের আমার একটি কন্যা সন্তান আছে।
তাই আমার ভয় হয় পরকীয়া প্রেমিকের সাথে যোগসাজশে আমার সন্তানকে ওরা মেরে ফেলতে পারে, ওদের কাছে আমি নিজেও নিরাপদ নই, আমার জীবন নিয়েও আমি শঙ্কিত , আমি চরম ভাবে নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি। তিনি বলেন পেশাগত কারনে আমি বেশিরভাগ সময়ই এলাকার বাহিরে থাকি, ঐ ঘটনার দিন আমি পটুয়াখালিতে ছিলাম এই সুযোগে আমার ঘরে বসেই আমার স্ত্রী পরপুরুষের সাথে অবৈধ মেলামেশায় লিপ্ত হয়। কান্না জড়িত কন্ঠে ওমর ফারুক বলেন দেশে পুরুষ নির্যাতনের কোন আইন নাই।
আমি চরমভাবে স্ত্রী কর্তৃক নির্যাতিত আমার স্ত্রী এরকম একটি জঘন্য কাজ করার পরেও বিভিন্ন লোক দিয়ে আমাকে হামলা, মামলাসহ প্রাণনাশের হুমকী দিয়ে আসছে।

এদিকে অভিযুক্ত সায়দিয়া বিনতে আলম (নিঝুম) ও তোফাজ্জেল হোসেন হাসানের অনেক অশ্লিল ছবি ও সোস্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বিভিন্ন কথা-বার্তা আদান-প্রদানের তথ্য সাংবাদিকদের কাছে এসেছে।

জানতে চাইলে পাথরঘাটা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার দিপক কুমার বিশ্বাস ও পাথরঘাটা থানার (ওসি তদন্ত) মোঃ সাইফুজ্জামান বলেন ওমর ফারুকের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, দোষিদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

� পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ �







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, গ্রীন ট্রেড পয়েন্ট, ৭ বীর উত্তম এ কে খন্দকার রোড, মহাখালী বা/এ, ঢাকা ১২১২।
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: [email protected]
কপিরাইট © দৈনিক নতুন সময় সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft
DMCA.com Protection Status