ই-পেপার সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২
ই-পেপার |  সদস্য হোন |  পডকাস্ট |  গুগলী |  ডিসকাউন্ট শপ
শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
সিয়ামকে নিয়ে খালে তল্লাশি চালিয়ে মিলল হাড়গোড়, আনোয়ারুলের কিনা পরীক্ষা হবে
নতুন সময় প্রতিবেদক
প্রকাশ: Sunday, 9 June, 2024, 1:51 PM

সিয়ামকে নিয়ে খালে তল্লাশি চালিয়ে মিলল হাড়গোড়, আনোয়ারুলের কিনা পরীক্ষা হবে

সিয়ামকে নিয়ে খালে তল্লাশি চালিয়ে মিলল হাড়গোড়, আনোয়ারুলের কিনা পরীক্ষা হবে

ভারতে বাংলাদেশের সংসদ সদস্য (এমপি) আনোয়ারুল আজীম আনার খুনের ঘটনায় আটক সিয়াম হোসেনকে নিয়ে খালে তল্লাশি চালিয়ে হাড়গোড় উদ্ধার করেছে পশ্চিমবঙ্গ সিআইডি। পরিচয় শনাক্তের জন্য সেগুলো পরীক্ষা করা হবে।

আজ রোববার সকালে নৌবাহিনীর ডুবুরি দল ও কলকাতা পুলিশের ডিএমজি টিমের সদস্যদের নিয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার ভাঙড়ের সাতুলিয়ার বাগজোলা খালে তল্লাশিতে নামে সিআইডি।

সিআইডি কর্মকর্তারা বলছেন, বাগজোলা খাল থেকে উদ্ধার হয়েছে একাধিক হাড়। এগুলো এমপি আনোয়ারুল আজিমের মরদেহের অংশ বলে সিয়ামের দাবি। তবে এই হত্যার ঘটনায় এর আগে আটক ‘কসাই’ জিহাদ হাওলাদার জিজ্ঞাসাবাদে ভিন্ন জায়গায় এমপির মরদেহ ফেলার কথা বলেছিল।

কিন্তু সিয়াম ভিন্ন জায়গার কথা বলেছে। সেই জায়গাতেই আজ তল্লাশি চালিয়ে হাড়গুলো উদ্ধার করা হয়। এগুলো বাংলাদেশের এমপি আনোয়ারুল আজিমের শরীরের হাড় কিনা তা জানতে ফরেনসিক পরীক্ষা করা হবে বলে জানান সিআইডি কর্মকর্তারা।

এ ঘটনায় ঢাকার শেরে বাংলা নগর থানায় মামলা করেন ঝিনাইদহ–৪ আসনের এমপি আনোয়ারুলের মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন।

তাতে তিনি উল্লেখ করেন, ৯ মে রাত ৮টার দিকে তাঁর বাবা ঢাকার মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে এমপি ভবনের বাসা থেকে গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহে রওনা হন। ১১ মে বিকেল ৪টা ৪৫ মিনিটে বাবার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বললে কথাবার্তায় কিছুটা অসংলগ্ন মনে হয়। এরপর মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলে বন্ধ পান।

গত ১৩ মে আনোয়ারুলের ভারতীয় নম্বর থেকে হোয়াটসঅ্যাপে একটি ম্যাসেজ আসে। তাতে লেখা ছিল, ‘আমি হঠাৎ করে দিল্লি যাচ্ছি, আমার সঙ্গে ভিআইপি আছে। আমি অমিত শাহের কাছে যাচ্ছি। আমাকে ফোন দেওয়ার দরকার নেই। পরে ফোন দেব।’

পরে আরও কয়েকটি ম্যাসেজ আসে। ম্যাসেজগুলো বাবার মোবাইল ফোন ব্যবহার করে অপহরণকারীরা করে থাকতে পারে। আনোয়ারুল আজীম ভারতে খুন হয়েছেন বলে বাদী জানতে পেরেছেন। তবে এখনো লাশ পায়নি পরিবার।

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, আনোয়ারুল আজীম গত ১২ মে দর্শনা–গেদে সীমান্ত দিয়ে চিকিৎসার জন্য ভারতে যান। বরাহনগরের স্বর্ণ ব্যবসায়ী বন্ধু গোপাল বিশ্বাসের বাড়িতে ওঠেন। কিন্তু ১৬ মে থেকে তাঁর সঙ্গে আর যোগাযোগ করতে না পারায় নিখোঁজ জানিয়ে ১৮ মে বরাহনগর থানায় জিডি করেন তাঁর কলকাতার বন্ধু গোপাল বিশ্বাস।

গত ২২ মে সকালে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে আনোয়ারুল আজীম আনার খুন হওয়ার খবর আসে। এরপর তাঁর মেয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় অপহরণের পর গুম করার অভিযোগে মামলা করেন।

পশ্চিবঙ্গ পুলিশ বলছে, গত ১৩ মে সঞ্জীবা গার্ডেনে এমপি আনারকে খুন করা হয়। তাকে খুন ও লাশ গোপন করার কাজে যুক্ত ছিলেন এই সিয়াম। নিউটাউনের অভিজাত ওই সঞ্জীবা গার্ডেনের যে সিসিটিভি ফুটেজেও সিয়ামকে দেখা গেছে।

সিয়ামকে নেপাল থেকে আটকের পর গতকাল শনিবার পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বারাসাত জেলা ও দায়রা আদালতে তোলা হয়। আদালত আগামী ১৪ দিনের জন্য তাকে সিআইডি হেফাজতে দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৬৪ (হত্যার উদ্দেশ্যে অপহরণ), ৩০২ (অপরাধমূলক নরহত্যা), ২০১ (তথ্য প্রমাণ লোপাট) এবং ৩৪ (সংঘবদ্ধভাবে অপরাধমূলক কাজ সংঘটিত করা)- এই চার জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দেওয়া হয়েছে।

� পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ �







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, গ্রীন ট্রেড পয়েন্ট, ৭ বীর উত্তম এ কে খন্দকার রোড, মহাখালী বা/এ, ঢাকা ১২১২।
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: [email protected]
কপিরাইট © দৈনিক নতুন সময় সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft
DMCA.com Protection Status