ই-পেপার সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২
সদস্য হোন |  আমাদের জানুন |  পডকাস্ট |  গুগলী |  ডিসকাউন্ট শপ
মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ ৩ বৈশাখ ১৪৩১
ময়মনসিংহে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৫৫০ টাকা কেজিতে গরুর মাংস বিক্রি
নতুন সময় প্রতিবেদক
প্রকাশ: Thursday, 28 March, 2024, 10:29 PM

ময়মনসিংহে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৫৫০ টাকা কেজিতে গরুর মাংস বিক্রি

ময়মনসিংহে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৫৫০ টাকা কেজিতে গরুর মাংস বিক্রি

ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ৫৫০ টাকায় এক কেজি গরুর মাংস ও ১০০ টাকায় ১ ডজন ডিম বিক্রি করছে জেলা প্রশাসন। গরুর মাংস ও ডিম কিনতে দীর্ঘ লাইনে শত শত নারী-পুরুষের উপচে ভিড় দেখা গেছে।


এ সময় দীর্ঘসময় লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করে মাংস ও ডিম কিনতে দেখা যায় অনেককে। ভর্তুকি মূল্যে এই মাংস ও ডিম বিক্রি করছে জেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) দুপুর দেড়টার দিকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনের সড়কে দেখা যায় মাংস কিনতে আসা নারী-পুরুষের দীর্ঘলাইন।

লাইনে মাংস কিনতে আসা ক্রেতাদের মধ্যে নিম্নবিত্তদের চেয়ে মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতি বেশি লক্ষ্য করা গেছে। এ সময় সাংবাদিক দেখে লাইনে দাঁড়ানো অনেককেই মুখ লুকিয়ে নিতে দেখা গেছে।
 
লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষায় থাকা সেলিম নামে একজন বলেন, বাজারে মাছ-মাংসের দাম অনেক বেশি, মানুষের হাতে টাকায় পয়সা কম। তাই অনেকেই বাধ্য হয়ে কম দামে লাইনে দাঁড়িয়ে মাংস কিনতে এসেছি।  এখানে গরিবের চেয়ে মধ্যবিত্তরা বেশি আসে।

জানা যায়, নিম্ন আয়ের মানুষের আমিষের চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে পবিত্র রমজান মাসে জেলা প্রশাসন ও জেলা প্রাণিসম্পদ বিভাগ যৌথভাবে ভর্তুকি মূল্য দিয়ে এই মাংস ও ডিম বিক্রির কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এতে বিক্রয় ও বিপণন কার্যক্রমে জেলা ডেইড়ি ফার্মার্স অ্যাসোসিয়েশন সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করছে।

জেলা ডেইরি ফার্মার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. মাহাবুবুর রহমান এ প্রতিবেদককে বলেন, ২১ মার্চ থেকে এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আজ দ্বিতীয় সপ্তাহে চারটি গরু জবাই করে ৮২৯ কেজি মাংস ও ৫ হাজার পিস ডিম বিক্রি করা হয়েছে।  

তবে লাইনে দাঁড়িয়েও অনেকে মাংস পায়নি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, লোকসংখ্যা বেশি,অনেকেই মাংস না পেয়ে ফিরে গেছে, সবাইকে দেওয়া সম্ভব না। তবুও আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। এ কারণেই গত সপ্তাহের চেয়ে এই সপ্তাহে মাংস বিতরণের পরিমাণ প্রায় দ্বিগুণ করা হয়েছে। কিন্তু এরপরও অনেকেই মাংস পায়নি, এই অবস্থা থাকবেই।

জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. আব্দুল জলিল বলেন, জেলা প্রশাসনের নিজস্ব তহবিল থেকে কিছু ভর্তুকি দিয়ে এবং সমাজের দানশীল ব্যক্তির সহযোগিতায় এই কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। রমজান মাসের প্রতি বুধবার ও বৃহস্পতিবার এই কার্যক্রম চলবে।

পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, গ্রীন ট্রেড পয়েন্ট, ৭ বীর উত্তম এ কে খন্দকার রোড, মহাখালী বা/এ, ঢাকা ১২১২।
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: info@notunshomoy.com
কপিরাইট © দৈনিক নতুন সময় সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft
DMCA.com Protection Status