নতুন সময় ডেস্ক
Published : Sunday, 10 February, 2019 at 4:09 PM

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরে নানা ঘটনাসদ্য শেষ হওয়া বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে ঘটেগেছে অনেক ঘটনা। যার শেষ ঘটনাটি হলো ঢাকার স্বপ্ন ভেঙে শিরোপা ঘরে তুলে নিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

দর্শকদের জন্য বিপিএলের নানা ঘটনা তুলে ধরা হল-

বিপিএলের বিতর্ক

বিপিএল মানেই বিতর্ক আর অনিয়মই হলো নিয়ম। ম্যাচ শুরুর আগেও পরিবর্তন হয় অনেক সিদ্ধান্ত।তেমনি একটি বিতর্ক সিধান্ত হলো, অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথকে খেলার সুযোগ করে দিতে নতুন আইন করে বিসিবি।এরপর ডিআরএস বিতর্ক। টুর্নামেন্টে শুরু হয়েছিল অর্ধেক ডিআরএস নিয়ে। পরে তা পরিপূর্ণ করা হয়।

স্লো ওভার রেটে শাস্তি

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরে নানা ঘটনা
বিপিএল এবারের আসরে স্লো ওভার রেটের কারণে কোনো অধিনায়ককে জরিমানা গুনতে হয়নি। এছাড়া আম্পায়ারের দিকে কোনো অধিনায়ক তেড়ে যাননি।

ডিআরএস ও আম্পায়ারিং বিতর্ক বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স বাদ দিয়ে আলোচনায় রিভিউ সিস্টেম (ডিআরএস)। এবারই প্রথম এই প্রতিযোগিতায় ব্যবহৃত হয় ডিআরএস সিস্টেম। ইতিমধ্যে এর মাধ্যমে নেওয়া সিদ্ধান্তগুলি নানা সমালোচনার জন্ম দিয়েছে।

ডিআরএস আছে অথচ আল্ট্রা এজ, স্নিকোমিটার, হটস্পট নেই। ফলে স্লো মোশন ও শব্দ শুনে সিদ্ধান্ত নিতে হয় মাঠে দায়িত্ব পালন করা আম্পায়ারদের।যার কারনে ভুরি ভুরি ভুল হয়। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্নের মুখে পড়ে ডিআরএস সিস্টেম।

ব্যাপক সমালোচনায় এবার নড়েচড়ে বসে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। তিনদিনের মধ্যেই আল্ট্রা এজ ব্যবহারের চেষ্টা ও বাকি সব ঠিক করে ফেলা হবে। ভারতের শীর্ষস্থানীয় ক্রীড়া বিষয়ক সংবাদমাধ্যম ক্রিকবাজকে এসব জানান গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

তিনি বলেন, ডিআরএস ভালোভাবে কাজে লাগাতে শিগগির আল্ট্রা এজ ব্যবহার হবে। ইতিমধ্যে ব্রডকাস্টারদের সঙ্গে আলোচনা করেছি।সিলেট সিক্সার্স-কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ম্যাচে ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথের আউট নিয়ে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়। ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেন কুমিল্লা কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন।

বিপিএলে টেলিভিশন আম্পায়ার খালি চোখে দেখে কয়েকটি সিদ্ধান্ত দেন যা বিতর্কের উত্তাপ ছড়ায়। বিতর্ক এড়াতে পরে ডিআরএসে আল্ট্রাএজ যোগ করে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরে নানা ঘটনা







দুর্দান্ত ও দুর্ভাগা তাসকিন

ইনজুরি কাটিয়ে দুর্দান্ত শুরু করেছিলেন তাসকিন।বিপিএলের চলমান আসরের ২২তম ম্যাচ শেষে সর্বাধিক উইকেট নেওয়া বোলার তাসকিন আহমেদ। ১২ ম্যাচে ২২ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি তাসকিন।সর্বাধিক দু’বার ৪ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েছেন তিনি। ওভার প্রতি ৮.৮৭ হারে রান দিয়ে ২৪ ওভার বল করে উইকেটগুলো নিজের ঝুলিতে তুলে নিয়েছেন তাসকিন।

সেই সাথে ইনজুরিতে তাসকিন আহমেদ। শনিবার(১ ফেব্রুয়ারি) বাউন্ডারিতে ফিল্ডিং করতে গিয়ে বাঁ পা মচকে যায় সিলেট সিক্সার্সের এই পেসারের। তার চোট কতোটা গুরুতর তাৎক্ষণিক তা জানা যায়নি। এক্স-রে করাতে তাসকিন আহমেদকে সেদিন মিরপুরের ১০ এ অবস্থিত পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়।

বিপিএলের পারফরম্যান্সে নিউজিল্যান্ড সফরের ওয়ানডে ও টেস্ট দলে সুযোগ পেয়েছিলেন এই টাইগার পেসার। কিন্তু শেষ ম্যাচে তাসকিন ফিল্ডিং করতে গিয়ে গোড়ালির ইনজুরিতে পড়েন।আর তাতে নিউজিল্যান্ড সফর শেষ হয়ে যায় তাসকিনের।

রুশোর​ রেকর্ড রান
রংপুর রাইডার্সের দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান রাইলি রুশোর ব্যাটে এবার ছিল রানের ঝড়। শুধু দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচেই শূন্য রানে আউট হন। তারপরও অসাধারণ ব্যাটিংয়ে বিপিএলে এক আসরে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েন তিনি। ১৪ ম্যাচ খেলে একটি সেঞ্চুরি ও পাঁচটি হাফ সেঞ্চুরি করেন এই দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান। তার ব্যাটিং গড় ৬৯.৫৫, রান ৫৫৮। অপরাজিত ছিলেন পাঁচবার। টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান তারই।

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরে নানা ঘটনা







এক দলে চার দানব

ক্রিস গেইল, এবি ডি ভিলিয়ার্স, অ্যালেক্স হেলস, রাইলি রুশো। ডি ভিলিয়ার্স সিলেট পর্বে যোগ দিতেই এই চার বিধ্বংসী ব্যাটসম্যানের সমন্বয়ে বদলে শুরু করে রংপুর রাইডার্স।লিগপর্বে রংপুর শেষ ছয় ম্যাচ টানা জয় পায়। শেষ ছয় ম্যাচ খেলে চলে যান ডি ভিলিয়ার্স। হেলস ইনজুরির কারণে দেশে ফিরে যান। এবার গেইল রানের দেখা না পেলেও বাকি তিন ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি করেন। ভিলিয়ার্স ও হেলস চলে যাওয়ার কারণে আর প্লে-অফ পর্বে রুশো ও গেইল জ্বলে উঠতে না পারায় ফাইনালে যেতে পারেনি রংপুর।

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরে নানা ঘটনা







মাশরাফি
আন্তর্জাতিক টি ২০ ক্রিকেট থেকে মাশরাফি অবসরে যান ২০১৭ সালে। কিন্তু সেই মাশরাফি ভেলকিতে একের পর এক চমক দেখান। এবারের আসরে ১৪ ম্যাচে ২২ উইকেট নেন এই টাইগার পেসার।যা টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। বিপিএলে রংপুর অধিনায়কের এটাই সেরা পারফরম্যান্স। প্রথম বিপিএলে ১১ ম্যাচে নিয়েছিলেন ১০ উইকেট। দ্বিতীয় বিপিএলে ১১ ম্যাচে আট উইকেট। তৃতীয় বিপিএলে ১২ ম্যাচে পাঁচ উইকেট। চতুর্থ বিপিএলে ১২ ম্যাচে ১৩ উইকেট। পঞ্চম আসরে তুলে নেন ১৪ ম্যাচে ১৫ উইকেট।

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরে নানা ঘটনা







আবারো ম্যাচ সেরা সাকিব
বোলিংয়ে তুলে নিয়েছেন সর্বোচ্চ ২৩ উইকেট আর ব্যাটিংয়ে করেছেন ৩০১ রান।যারফলে বিপিএলে সেরা অলরাউন্ডার হলেন সাকিব। টুর্নামেন্টসেরাও এই ঢাকার অধিনায়ক।

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরে নানা ঘটনা







তামিম ঝড়

বিপিএলের আগের পাঁচ আসরে একবারও ফাইনালে খেলা হয়নি তামিম ইকবালের। এবার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে খেললেন নিজের প্রথম বিপিএল ফাইনাল। গেইল না থাকলেও ফাইনালে তার অভাব বুঝতে দেননি তামিম। খেলেছেন ৬১ বলে ১৪১* রানের মহাকাব্যিক এক ইনিংস। শেষ পর্যন্ত টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও হয়েছেন তিনি। ১৪ ম্যাচে তার রান ৪৬৭।

রংপুরের রানের রেকর্ড

এক ইনিংসে দুই সেঞ্চুরি বিপিএলে এবারই প্রথম। চট্টগ্রামে চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে চার উইকেটে ২৩৯ রান করে বিপিএলে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়ে রংপুর। অ্যালেক্স হেলস (১০০) ও রাইলি রুশো (১০০*) করেন সেঞ্চুরি। টি ২০ ইতিহাসে তৃতীয়বারের মতো এক ইনিংসে দুই সেঞ্চুরির দেখে দর্শক। এবারের আসরে হওয়া রেকর্ড ছয় সেঞ্চুরির তিনটিই রংপুরের।

সেঞ্চুরি-হ্যাটট্রিকের ম্যাচ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স এভিন লুইসের অপরাজিত ১০৯ রানের সুবাদে পাঁচ উইকেটে ২৩৭ রান করে।সেই ম্যাচে খুলনা টাইটানস ১৫৭ রানে অলআউট হয়। টানা তিন বলে তিন ব্যাটসম্যানকে আউট করে হ্যাটট্রিক করেন পাকিস্তানি পেসার ওয়াহাব রিয়াজ। বিপিএল প্রথমবারের মতো এক ম্যাচে সেঞ্চুরি ও হ্যাটট্রিকের কীর্তি দেখে বিপিএল দর্শক।

বিপিএলে সেঞ্চুরি

প্রথম বিপিএলে সেঞ্চুরি হয় চারটি। গেইল করে দুটি। দ্বিতীয় বিপিএলে সেঞ্চুরি হয় তিনটি। গেইল করে একটি। তৃতীয় ও চতুর্থ বিপিএলে সেঞ্চুরি হয় একটি করে। পঞ্চম বিপিএলে সেঞ্চুরি হয় তিনটি। গেইল দুটি। এবারের বিপিএলে সেঞ্চুরি হয় ছয়টি। এভিন লুইস (১০৯*), লরি ইভান্স (১০৪*), রাইলি রুশো (১০০*) এবি ডি ভিলিয়ার্স (১০০*), অ্যালেক্স হেলস (১০০) ও তামিম ইকবাল (১৪১*)।

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরে নানা ঘটনা







হ্যাটট্রিকের বিপিএল

আগের পাঁচ আসরে হ্যাটট্রিক হয় মাত্র দুটি। আর এবার এক আসরেই হ্যাটট্রিক হয় তিনটি। যার দুটিই আবার ঢাকা ডায়নামাইটসের। এবারের আসরের প্রথম হ্যাটট্রিক ঢাকার আলিস ইসলামের। ঢাকার অফ-স্পিনার অভিষেকে হ্যাটট্রিক করেণ। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের পাকিস্তানি পেসার ওয়াহাব রিয়াজ চট্টগ্রামে হ্যাটট্রিক করেন। একদিন পর আন্দ্রে রাসেল ঢাকার পক্ষে করেন দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক। বিপিএলের উদ্বোধনী আসরে হ্যাটট্রিক করেছিলেন পাকিস্তানের মোহাম্মদ সামি। তৃতীয় বিপিএলে হ্যাটট্রিক করেন বাংলাদেশি পেসার আল আমিন হোসেন।

বিপিএল প্রথম সুপার ওভার
ষষ্ঠ আসরে এসে বিপিএলপ্র থম সুপার ওভার দেখা পায়। টুর্নামেন্টের শুরুর দিকে খুলনা টাইটানস ও চিটাগং ভাইকিংসের ম্যাচটা টাই হয়। তারপর এক ওভারের রোমাঞ্চে চিটাগং জয় তুলে নেয়।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, বাড়ি ৭/১, রোড ১, পল্লবী, মিরপুর ১২, ঢাকা- ১২১৬
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: newsnotunsomoy@gmail.com
Developed & Maintainance by i2soft