নতুন সময় ডেস্ক
Published : Wednesday, 21 November, 2018 at 9:10 PM, Update: 21.11.2018 9:19:52 PM, Count : 196
'দেশের প্রতিটি স্কুল-কলেজে, পাড়া মহল্লায় লাইব্রেরি গড়ে তুলুন'

'দেশের প্রতিটি স্কুল-কলেজে, পাড়া মহল্লায় লাইব্রেরি গড়ে তুলুন'

বিশ্বজুড়ে এখন বাংলাদেশের সৃজনশীল বই- হাত বাড়ালেই মিলে। আপনার প্রিয় লেখকের কোন বইটি পড়তে চাই! বইমেলার মাধ্যমে পাঠকের কাছে বাংলাদেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য-কৃষ্টি-সংস্কৃতি-জীবনধারার ক্রমবিকাশ তুলে ধরার নানামুখী উদ্যোগ কখনো নিরবে আবার কখনোবা সরবে চালিয়ে যাচ্ছে অবিরত আমাদের প্রকাশক সমিতি । এখন আপনার শুধু প্রয়োজন পাঠাভ্যাস। জ্ঞান ভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণে এই পাঠাভ্যাসের বিকল্প নেই। জীবনের সার্বিক বিকাশ ও উৎকর্ষ ঘটানোর উপযোগী বিচিত্রমুখী শিক্ষার সুযোগ বিশ্লেষণাত্মক চিন্তার দক্ষতা বই পড়ার মাধ্যমে আপনার যেকোনো একটা বিষয়ে বিশ্লেষণ করার ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

এখন জাগরনের দিন এসেছে। বিশ্বসাহিত্যের তাবত সন্ধান আপনার হাতের আইফোন বা লেপটপেই রয়েছে, যা চাইলেই আপনি খুঁজেনিতে পারেন- কয়েক মিনিটের ব্যবধানে। আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির দুনিয়ায় নিজেকে তৈরিকরে নিতে- জেগে উঠতে হবে প্রতিটি বইপড়ুয়া- সৃজনশীল মানুষ কে। পৃথীবির ভিবিন্ন ওয়েবসাইটে পেয়ে যাবেন-আপনার স্বপ্নময় দুনিয়া আর প্রিয় সব বই। প্রতিদিন সময়করে একবার হলেও এই সাইটগুলোতে ভিজিট করতে ভুলবেন না যেন। যা আপনাকে বর্তমান বিশ্বের বা বহু অতীতের সাহিত্যকর্ম-শিল্প ও বানিজ্য সংক্রান্ত সকল তথ্য জানান দিবে। এক্ষেত্রে আপনার জ্ঞ্যান চর্চার জন্য- দেশি-বিদেশি বিভিন্ন বই পড়তে পারেন। আপনি নিত্য-নতুন ধারণার সাথে নিজেকে খাপ খাইয়ে নিতে পারবেন। পাশাপাশি প্রকাশকরা দেশে-বিদেশে আপনাদের বই বিপননও করতে পারেন। নিশ্চিৎ বলা যায় আগামী দিন গুলোতে এধারা অব্যাহত থাকলে অবশ্যই বাংলাদেশের প্রকাশকদের মান-মর্যাদা বিশ্বের দরবারে অনেক দূর এগিয়ে যাবে। আপনার ভেতরে থাকা-”আমিত্ব” কে বাদ দিন! কে আমি? কি আমি! আমি কি হয়ে গেলাম--- এসব ছূঁড়ে ফেলে দিন। সব সমাধান হয়ে যাবে নিমিষেই।
'দেশের প্রতিটি স্কুল-কলেজে, পাড়া মহল্লায় লাইব্রেরি গড়ে তুলুন'

'দেশের প্রতিটি স্কুল-কলেজে, পাড়া মহল্লায় লাইব্রেরি গড়ে তুলুন'



সবাই কি আর রবীন্দ্রনাথ, নজরুলের মতো নিজের সবটুকু উজার করে দিতে জানে? আমাদের ত্যাগ যত বড়... ভাব ততো বড়। স্বভাব যত ভাল,... ভাবও ততো ভাল। যার মধ্যে জ্ঞানের আলো থাকে তিনি কখনও নিঃসঙ্গতায় ভোগেন না। বরং নিঃসঙ্গতাকে না বলে ... সমাজকে এগিয়ে নিতে পারেন। সব কুট-কৌশল ত্যাগ করে আমাদের সামনে এগোতে হবে এটি হলো--- সারকথা। আসুন সবাই মিলে এক সাথে এই মহৎ কাজটি করতে সহায়তা করি। প্রযুক্তির অত্যধিক ব্যবহার, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং বিভিন্ন মোবাইল অ্যাপস্ ব্যবহারের ভয়াবহ আসক্তিতে সৃজনশীল বই পড়ার অভ্যাস ও আগ্রহ দু’টোই বর্তমানে কমেছে।

অবিরত যে ছেলে-মেয়েরা বইয়ের পাতায় মাথা গুঁজে পড়ে থাকত তারা এখন সৃজনশীল বই ছোঁয়েও দেখে না । বাসার ড্রয়িং রুমে আগের মত বই শোভা পায় ক’টি ঘরে। অনেকের ধারনা অনলাইনে ই-বুক পড়ার প্রবণতা নাকি বেড়েছে। যদি তাই হয় তাহলে সেটিও ইতিবাচক; তবুও মানুষ বই পড়ছে- পড়ুক ! এ্রইধারা অব্যাহত থাকুক যুগ যুগ ... অনাদিকাল ধরে।

বই নিয়ে সৈয়দ মুজতবা আলীর লেখা দিয়ে যবনিকায় এলাম- “রুটি মদ ফুরিয়ে যাবে, প্রিয়ার কালো চোখ ঘোলাটে হয়ে আসবে, কিন্তু বইখানা অনন্ত যৌবনা- যদি তেমন বই হয়।’’ এমনটি বোধ করে ওমর খৈয়াম তাঁর বেহেশতের সরঞ্জামের ফিরিস্তি বানাতে গিয়ে- কেতাবের কথা ভোলেন নি ।

বইমেলা হোক দেশের স্কুল-কলেজ, পাড়ায় মহল্লায় বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা-উপ-জেলায়।

লেখক
মো: শিহাব উদ্দীন ভূইঞা
প্রকাশক দি ইউনিভার্সেল একাডেমি এবং বাংলাদেশ জ্ঞান ও শৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সাবেক মেলা পরিচালক।  



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, বাড়ি ৭/১, রোড ১, পল্লবী, মিরপুর ১২, ঢাকা- ১২১৬
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: newsnotunsomoy@gmail.com
Developed & Maintainance by i2soft