নতুন সময় প্রতিবেদক
Published : Wednesday, 19 September, 2018 at 12:18 AM, Count : 75
ডিজিটাল নিরাপত্তা, সড়ক পরিবহন ও কওমি মাদ্রাসা বিল পাস হবে আজ

ডিজিটাল নিরাপত্তা, সড়ক পরিবহন ও কওমি মাদ্রাসা বিল পাস হবে আজ

সম্পাদক পরিষদ ও সাংবাদিক নেতাদের আপত্তি সত্ত্বেও বহুল আলোচিত ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল বুধবার জাতীয় সংসদে পাস হতে যাচ্ছে। মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে জাতীয় সংসদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বুধবারের কার্যসূচিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এছাড়াও বুধবারের কার্যসূচিতে আলোচিত সড়ক পরিবহন বিল এবং কওমি মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড বিল দুটি পাস হবে বলেও জানানো হয়েছে।

কার্যসূচি অনুযায়ী বিকাল পাঁচটায় সংসদের বৈঠক শুরু হবে।

প্রসঙ্গত: সংসদে প্রস্তাবিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অন্তত আটটি ধারায় গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের আপত্তি থাকলেও তা সুরাহা না করে ১৭ সেপ্টেম্বর ( সোমবার) সংসদে রিপোর্ট উপস্থাপন করেছে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। তবে গণমাধ্যমের আপত্তির ক্ষেত্রে কয়েকটি ধারায় কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে। এক্ষেত্রে এই আইনের অধীনে অপরাধের কিছু জায়গায় শাস্তি কমানোরও সুপারিশ করা হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় সংসদীয় কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ বিলের প্রতিবেদন সংসদে উপস্থাপন করেন। এই বিলে গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণের প্রসঙ্গ এনে বিল উত্থাপনকালে সংসদে দেওয়া বক্তব্যে কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ বলেন, গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের বক্তব্য সন্নিবেশ করে প্রয়োজনীয় সংশোধনী আনা হয়েছে। এই বিলটি পাস হলে তা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ায় ভূমিকা রাখবে। এদিকে সংসদে রিপোর্ট উপস্থাপনের আগেই রিপোর্টের সুপারিশগুলো নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর সম্পাদক পরিষদ গতকাল রবিবার এক বিবৃতি দিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

গত ২৯ জানুয়ারি ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮’এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। বহুল আলোচিত এই আইনের খসড়া আইনসভার অনুমোদনের জন্য গত ৯ এপ্রিল সংসদে উত্থাপন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার। এই বিলটি চলতি অধিবেশনে পাস হবে বলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছিলেন।

অন্যদিকে, ১৩ সেপ্টেম্বর জাতীয় সংসদে উত্থাপিত হয়েছে বহুল আলোচিত ‘সড়ক পরিবহন বিল ২০১৮’। এতে বেপরোয়া মোটরযানের কবলে পড়ে দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের সাজার বিধান রাখা হয়েছে। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিলটি উত্থাপন করেন। পরে তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সাত দিনের মধ্যে সংসদে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটিতে পাঠানো হয়। গত ২৯ জুলাই রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সরকার আইনটি দ্রুত প্রণয়নের উদ্যোগ নেয়।

অপরদিকে, সংসদের চলতি অধিবেশনেই উত্থাপিত হয়েছে ‘কওমি মাদ্রাসাসমূহের দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি) সমমান প্রদান আইন, ২০১৮’। এর আগে গত ১৩ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে কওমি সনদের স্বীকৃতি আইনের খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়।

২০১৭ সালে ১১ এপ্রিল গণভবনে হেফাজতে ইসলামের আমির ও বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের (বেফাক) সভাপতি আল্লামা শাহ আহমদ শফীসহ প্রায় ৩০০ জন আলেমের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে কওমি মাদ্রাসার সনদের স্বীকৃতির ঘোষণা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর শিক্ষা মন্ত্রণালয় ১৩ এপ্রিল কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্স ইসলামিক স্টাডিজ এবং আরবি’র সমমান ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করে। প্রকাশিত গেজেটে বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের সভাপতি ও হেফাজতের আমির আহমদ শফীকে চেয়ারম্যান করে ১৫ সদস্যের একটি বাস্তবায়ন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এ কমিটির উদ্যোগে গঠিত হয় ‘আল-হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ’ নামে নতুন সংস্থা। এ সংস্থার অধীনে ২০১৭ ও ২০১৮ সালে দেশের মাদ্রাসাগুলোয় দাওরায়ে হাদিস পরীক্ষাও অনুষ্ঠিত হয়েছে।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, বাড়ি ৭/১, রোড ১, পল্লবী, মিরপুর ১২, ঢাকা- ১২১৬
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: newsnotunsomoy@gmail.com
Developed & Maintainance by i2soft